প্রবাস দর্পণ ডেস্ক:

স্পেনে নতুন আক্রান্তের সংখ্যা প্রতিদিনই কমছে গত দুই দিনে দুই জনের মৃত্যু হয়েছে,স্পেনের জন্য স্বস্তির খবর ছিল এটি শূন্যের কোঠায় নেমে এসেছে মৃত্যুর হার! গত ২০১৯ সালের ডিসেম্বর মাসে চীনের উহান প্রদেশ থেকে একটি অচেনা অদৃশ্য কভিড ১৯ মরণ ব্যাধি করোনা ভাইরাসের খবর ছড়িয়ে পড়ে বিশ্বজুড়ে l শুরু থেকে ভাইরাসটির সাথে পরিচিত ছিল না পৃথিবীর মানুষ,ধীরে ধীরে মানব শরীরে তাঁর প্রভাব বিস্তার শুরু করে lমানুষ হতে মানুষের মধ্যে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে ছোঁয়াচে স্বভাবের ভয়ংকর মরণব্যাধি এ রোগ lএকপর্যায়ে রোগটি গণপরিবহন ও বিমান যুগে এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় এক দেশ হতে অন্য দেশে দ্রুত ছড়িয়ে যায় lবিশ্ব অর্থনৈতিক মন্দার কারণে যখন সস্তাদরের চাইনিজ পণ্যের দখলে বিশ্ব বাজার চাহিদা অনুযায়ী পণ্য রপ্তানিতে ওস্তাদ চীনারা l

চাইনিজিদের মাধ্যমে ইউরোপ আমেরিকা এশিয়া অস্ট্রেলিয়া আফ্রিকা সহ পৃথিবীর সব কয়টি দেশে পাড়ি জমায় অদৃশ্য করোনা ভাইরাস l ২০২০সালের জানুয়ারি মাসের মাঝামাঝি সময় ইউরোপের বিভিন্ন দেশে করোনা ভাইরাস রোগীর সিমটম দেখা দেয় l ছোঁয়াচে রোগের সাথে পরিচিত না থাকায় প্রথমে এত গুরুত্ব দেয়নি ইতালি ফ্রান্স জার্মান ও স্পেনের সরকার ক্রমশই বাড়তে থাকে রোগীর সংখ্যা। ফেব্রুয়ারি ২০২০ এর মধ্যেই রোগী ধারণক্ষমতা হারিয়ে ফেলে হসপিটাল গুলি,বাধ্য হয়েই মার্চের প্রথম সপ্তাহে লকডাউন ঘোষণা করে সরকার l শুরু হলো হাজার হাজার মানুষের মৃত্যু দিশেহারা হয়ে পরে ইতালি ফ্রান্স স্পেনে সরকার বিভিন্ন মেয়াদে বাড়তে থাকে লকডাউন lবন্দ করে দেওয়া হয় সকল যোগাযোগ ব্যবসা-বাণিজ্য সংগনিরোধ আইনে দেশের সকল নাগরিককে ঘরে থাকার নির্দেশ l মুখ থুবড়ে পড়েছে দেশের অর্থনীতি দেশের ভবিষ্যত ও সুরক্ষার কথা চিন্তা করে ডিজিপির ১৫ শতাংশ ব্যয় করেছে স্পেন সরকার। এখন ধীরে ধীরে অবস্থার উন্নতি হচ্ছে ইউরোপের দেশ গুলিতে ইতালিতে লকডাউন তুলে নিয়েছে সরকার lসহজ শর্তে লকডাউন তুলে নিয়েছে ফ্রান্স সরকার নতুন আক্রান্ত এবং মৃত্যুর হার কমছে প্রতিদিন l

স্পেনের লকডাউন চলছে চলবে আগামী ৭ জুন পর্যন্ত তবে মুখে মাস্ক পরিধান ও শর্ত রেখে মানুষের চলাফেরার অনুমতি দিয়েছে সরকার l খুলে রাখার অনুমতি দেয়া হয়েছে কফি বার রেস্টুরেন্ট ইলেকট্রনিক্স মুদি দোকান নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য সহ সুপার মার্কেট গুলি lআইন অমান্য করলে জেল-জরিমানা, মানুষের মধ্যে দূরত্ব বজায় রেখে চলাফেরা করতে নজরদারি করছে স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন l মানুষের চলাফেরায় শর্ত রেখে আগামী ৮ জুন লকডাউন তুলে নিবে স্পেন সরকারকাজে যোগ দিবে হাজার হাজার মানুষ আবারও ব্যস্ত হয়ে উঠবে প্রতিটি শহর l স্পেনে এপর্যন্ত তিনজন বাংলাদেশীসহ ২৭,১২৫ জনের মৃত্যু হয়েছে ,সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরেছেন ১ লক্ষ ৯৬ হাজার ৫৮জন l