লেবানন থেকে ওয়াসীম আকরাম :

যথাযথ মর্যাদায় লেবাননের বাংলাদেশ দুতাবাসে শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত হয়েছে। রবিবার (২১শে ফেব্রুয়ারি) দূতাবাসের ছাদে দিনের প্রথম প্রহরে জাতীয় পতাকা অর্ধনিমিত করেন লেবাননে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মেজর জেনারেল মো: জাহাঙ্গীর আল মোস্তাহিদুর রহমান (পিএসসি)।

এরপর দূতাবাসে নির্মিত অস্থায়ী শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন বাংলাদেশ দূতাবাস, লেবানন আওয়ামী লীগ, লেবানন বিএনপি, সামাজিক সংগঠন লেবাননে বাংলাদেশ প্রবাসী অধিকার পরিষদ, লেবানন ববন্ধুমহল ঐক্য ফোরাম এর নেতৃবৃন্দ। সবশেষে রাষ্ট্রদূত মেজর জেনারেল মো: জাহাঙ্গীর আল মোস্তাহিদুর রহমান (পিএসসি) এর সভাপতিত্বে দূতাবাসে হল রোমে দিবসটির উপর আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। আলোচনা সভার শুরুতে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করেন দূতাবাস কর্মকর্তা খালেদ সরদার। এরপর ভাষা শহীদদের স্বরণে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।

বাংলাদেশ থেকে প্রেরিত রাষ্ট্রপতির বাণী পাঠ করেন শুনান দূতাবাসের প্রথম সচিব (শ্রম) আব্দুল্লাহ আল মামুন, প্রধানমন্ত্রীর বাণী পাঠ করেন দূতাবাসের তৃতীয় সচিব আব্দুল্লাহ আল শাফি, পররাষ্ট্র মন্ত্রীর বাণী পাঠ করেন দূতাবাসের প্রশাসনিক কর্মকর্তা সাইফুর রহমান, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বাণী পাঠ করেন শুনান দূতাবাসের কর্মকর্তা আরমান প্রধান। এছাড়া দিবসটির তাৎপর্যের উপর বক্তব্য রাখেন, কমিউনিটি নেতা এস এম জসিম, আশফাক তালুকদার, দুলা মিয়া সহ অনেকে। সব শেষে রাষ্ট্রদূতের সমাপনী বক্তব্যে মাধ্যমে সভার সামাপ্তি ঘটে। রাষ্ট্রদূত তার আলোচনার শুরুতে গভীর শ্রদ্ধায় স্মরণ করেন ভাষা আন্দোলনের মহান শহীদদের ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে।

রাষ্ট্রদূত বলেন, মাতৃভাষার জন্য আত্মদান পৃথিবীর ইতিহাসে এক বিরল ঘটনা। একুশের চেতনার মাধ্যমে বাঙালি জাতি মহান মুক্তিযুদ্ধের প্রেরণা পেয়েছিল যার ফলে পরবর্তীতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে সশস্ত্র সংগ্রামের মাধ্যমে আমাদের মহান স্বাধীনতা অর্জিত হয়েছিল। বর্তমানে করোনা ভাইরাস প্রকোপকালে স্বাস্থ্যবিধি মেনে লেবাননে বসবাসরত প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার প্রতিনিধিগণ, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ও রাজনৈতিক, সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ সহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ অনুষ্ঠানে যোগ দেন।